এ+ এর গল্প

Ad Code

Ticker

6/recent/ticker-posts

এ+ এর গল্প



প্রমথ চৌধুরীর  'বই পড়া' প্রবন্ধটি বেশ মনে হচ্ছে।


 অভিভাবক  গুলো জ্ঞান অর্জনের তুলনায় এ+ পাওয়াটায় মূখ্য বিষয় মনে করে। যদি সেটা এক অথবা  হাফ মার্কও কম হয়, তাও গ্রহণ যোগ্য নয়।এ+ পাওয়ায় লাগবে। দরকার হলে প্রহর করো,শাস্তি দাও কিন্তু এ+ চাই। যেনো মনে হয়  এ+ এর জন্য  সব বই গিলে খাও।


কিছু অভিভাবক আবার নিজেই অসুস্থ হয়ে যায় এ+ টেনশনে। ছাত্র কে সুযোগ দেওয়া চিন্তা বাদ দিয়ে।  সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথের কাঁটা, টেনশন শব্দ টা চাপিয়ে দিচ্ছে। 


আমার এক ছাত্র গত পরিক্ষায় 

গণিত - ৮৫

বাংলা -৮৩

ইংরেজি -৭৮


তারপর ও বাবা মা খুশি হয় নি।আর খুশি হবেই বা কি করে ইংরেজি তে এ+ হয় নি। ২ মার্ক কম কেন হলো।


আমাদের সমাজে  এমন অনেক  মা আছেন  যাঁরা শিশু সন্তানকে ক্রমান্বয়ে  গরুর দুধ গেলানোটাই শিশুর স্বাস্থ্যরক্ষার ও বলবৃদ্ধির সর্বপ্রধান উপায় মনে করে। ঠিক তেমনি এ+ পাওয়া টায় বর্তমান সময়ে এক জন ভালো ছাত্রের বৈশিষ্ট্য মনে করে। 


আমি এ+ না পাওয়া পক্ষে নয়।কিন্তু কিছু ছাত্র এ+ না করেও ভালো হয়।


এ+ দুই এক মার্কের জন্য  না হলে আপনার ছেলেকে চাপ দিবেন না। এই সময়ে  তার পাশে থাকলে সমানে আরো ভালো কিছু করার সুযোগ আছে। 


ছেলেদের ও মন আছে। তাদের মনের অবস্থা বুঝার চেষ্টা করুন।


--------শাহরুজ্জামান তুহিন

Post a Comment

0 Comments